মর্গ‍্যান-হাউস

পৃথা ভট্টাচার্য

এই নিয়ে ৩ নম্বর বার আমি মর্গ‍্যান হাউসে একা রাত কাটাচ্ছি। পরিবেশ অতুলনীয়, অবর্ণনীয়। যে আসবে সে’ই এই জায়গার প্রেমে পড়তে বাধ্য।

এখানে অদ্ভুত একটা আকর্ষণ কাজ করে। রাতের বেলায় করিডোর দিয়ে গেলে, নিজের পায়ের শব্দ শোনা যায়,মনে হয় যেন পেছনে কেউ আসছে, কিন্তু কেউই নেই। একটা ঘোরের মধ্যে আছি। শরীর টা একটু ভারী ভারী লাগছিল, তাই ঘরে চলে এলাম।জ্বর আসতে পারে।দরজা বন্ধ করে দিলাম, কিছুতেই ভালো করে লক্ হচ্ছিল না। বাথরুমে গেলাম, ফ্ল‍্যাশ টা বোধহয় খারাপ, অবিরাম জল পড়েই যাচ্ছে-টপ্ টপ্…!! ঘরে এসে শুলাম। ঘুম আসছে না,জলের শব্দ-টপ্ টপ্…!!

৪বার বন্ধ করে এসেছি, থামছেই না।এমন সময় দরজায় কে যেন নক্ করল-খুললাম, দেখি কেউ নেই।আবার নক্ করার আওয়াজ, খুললাম দরজা, কেউ নেই, শুধু দরজার নিচের দিকে দেখি একটা ছোট্ট কাগজ পড়ে আছে, তাতে লেখা-“আমি বুঝিনি, সময় পাইনি ফ্ল‍্যাশ টা বন্ধ করার, গলায় খুব টান লেগেছিল তো…তখন মরব না জল বন্ধ করব বলুন তো…?! একটু কষ্ট করে ঘুমিয়ে পড়ুন!!”

The following two tabs change content below.

Preethaa Bhattacharya

Latest posts by Preethaa Bhattacharya (see all)

আপনার মতামত:-

%d bloggers like this: