চানা পনির মশালা (Chana Paneer Masala)

শুভশ্রী হালদার

“চানা” বা “ছোলে বা “চানে” অথবা কাবুলি ছোলা যে নামেই ডাকা হোক না কেন, এই বিশিষ্ট উপকরণটি বাঙ্গালীর উৎসব অনুষ্ঠানের একেবারে অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। নান সহযোগে চানা-পনীর যখন পাতে পড়ে, তখন বোধয় এমনিই জিভে জল আসে। আবার বাড়ির খাবারেও যখন একটু অন্য স্বাদ নিতে ইচ্ছা করে, চাই কিছু স্বাস্থ্যকর ও সুস্বাদু খাবার যা একই সঙ্গে বাড়ির বাচ্চা ও বড় সবার মন জয় করে নেবে… তখন বানিয়ে ফেলুন এই চানা পনীর মশালা।

উপকরণ:-
  • ২৫০ গ্ৰাম কাবুলি ছোলা।(৮-৯ ঘন্টা বা Overnight জলে ভিজিয়ে রাখা)।
  • ১ টি মাঝারি সাইজের আলু ( ডুমো ডুমো করে কাটা)।
  • পনির ১০০ গ্ৰাম (ছোট ছোট কিউব আকারে কাটা)।
  • ১টি মাঝারি সাইজের পিঁয়াজ (কুঁচি করে কাটা)।
  • ১টেবিল চামচ আদা- রসুন পেষ্ট।
  • ১টি ছোট সাইজের টমেটো (কুঁচি করে কাটা)।
  • গোটা জিরে ১চা চামচ।
  • তেজ পাতা ১টি।
  • হলুদ গুঁড়ো ১.৫ চা চামচ।
  • লঙ্কা গুঁড়ো ১চা চামচ।
  • জিরে গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ।
  • ধনে গুঁড়ো ১/২ চা চামচ।
  • চানা মশলা ১.৫ চা চামচ।
  • গরম মশলা ১/২চা চামচ।
  • নুন স্বাদ মতো।
  • চিনি ১/২ চা চামচ।
  • ধনে পাতা ১/২ কাপ ( কুঁচি করে কাটা)।
  • টক দই ২ টেবিল চামচ।
  • সাদা তেল (রান্নার জন্য)।
পদ্ধতি:-

চানা পনির করতে গেলে প্রথমেই ৮-৯ ঘন্টা ভিজানো চানা গুলি ধুইয়ে নিয়ে প্রেসার কুকারে ১চা চামচ নুন,১/২ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো,১চা চামচ সাদা তেল এবং ১কাপ জল(যাতে ছোলা গুলি ডুবে থাকে) দিয়ে ৩-৪ টি সিটির মাধ্যমে কাবুলি ছোলা গুলি সিদ্ধ করে নিন।

এরপর গ্যাসে একটি কড়াই চাপিয়ে তাতে রান্নার জন্য পরিমাণ মতো তেল দিন। তেল গরম হয়ে গেলে ছোট ছোট কিউব আকারে কাটা পনির কড়াইয়ে দিয়ে দিন এবং মাঝারি আঁচে পনির হালকা বাদামি করে ভেজে নিন।

হালকা বাদামি রঙের ভাজা পনির একটি প্লেটে কিচেন টাওয়েল (পনিরের অতিরিক্ত তেল ঝরার জন্য) নিয়ে তাতে তুলে রাখুন।

এরপর সেই কড়াই-তেই  ১চা চামচ গোটা জিরে ও ১ টি তেজপাতা দিয়ে দিন এবং ১ মিনিট ভেজে নিন।

জিরে ও তেজপাতা ভাজা হয়ে গেলে ডুমো ডুমো করে কেটে রাখা আলু তাতে দিয়ে দিন এবং অল্প নুন দিয়ে মাঝারি আঁচে ঢাকা দিয়ে হালকা ভেজে নিন।

আলু হালকা ভাজা হয়ে গেলে কুঁচি করে কেটে রাখা পিঁয়াজ তাতে দিয়ে দিন এবং ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে হালকা ভেজে নিন।

পিঁয়াজ হালকা ভাজা ভাজা হয়ে গেলে তাতে ১ টেবিল চামচ আদা-রসুন পেষ্ট দিয়ে দিন এবং ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে হালকা আঁচে কিছুক্ষণের জন্য ঢাকা দিয়ে রেখে দিন, যাতে আদা-রসুনের কাঁচা গন্ধ চলে যায়।

আদা-রসুনের কাঁচা গন্ধ চলে গেলে, তাতে কুঁচি করে কেটে রাখা টমেটো দিয়ে দিন এবং মিশিয়ে নিন। টমেটো সিদ্ধ হবার জন্য আবারও ২ মিনিট ঢাকা দিয়ে রেখে দিন।

টমেটো সিদ্ধ হয়ে গেলে লঙ্কা গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো ও চানা মশলা- এই সব কিছু একে একে দিয়ে দিন। এবং ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে কম-মাঝারি আঁচে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন, যাতে মশলার কাঁচা গন্ধ চলে যায়।

ঢাকা খুলে, মশলার কাঁচা গন্ধ চলে গেলে, সিদ্ধ করে রাখা কাবুলি ছোলা তাতে দিয়ে দিন।

ভালো করে মিশিয়ে নিন এবং স্বাদ মতো নুন, ১/২ চা চামচ চিনি, এবং ২ কাপ জল দিয়ে মাঝারি আঁচে ১০ মিনিটের জন্য ঢাকা দিয়ে রেখে দিন।

ঢাকা খুলুন এবং দেখুন আলু ও কাবুলি ছোলা দুটোই ভালো ভাবে সিদ্ধ হয়ে গেছে। এই সময়ে ভেজে রাখা পনির চানা মশলায় দিয়ে দিন। ভালো করে মিশিয়ে নিন ও ২-৩ মিনিটের জন্য মাঝারি আঁচে রেখে দিন।

এরপর ২ টেবিল চামচ টক দই দিন, এতে চানা পনিরের রঙ ও স্বাদ দুটিই সুন্দর হবে। টক দই ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে ১ মিনিটের জন্য ঢাকা দিয়ে রাখুন, যাতে টক দইয়ের গন্ধ চলে যায়।

এরপর ঢাকা খুলে গ্যাস বন্ধ করুন এবং ১/২ চামচ গরম মশলার গুঁড়ো ও ১/২ কাপ ধনেপাতা কুঁচি উপরে ছড়িয়ে দিন।

ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে ৩-৪ মিনিটের জন্য ঢাকা দিয়ে রেখে দিন, যাতে গরম মশলার ও ধনে পাতার গন্ধ ভালো ভাবে চানা পনিরে মিশে যায়।

৩-৪ মিনিট পর ঢাকা খুলে আরেক বার ভালো করে নাড়িয়ে নিন ও প্লেটে ঢেলে লুচি, রুটি, নান বা জিরা রাইসের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন চানা পনির মশালা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *